দিনপঞ্জিঃ ০১

তারিখঃ ১৫ অক্টোবর ২০১৬

আজকে সকালে ফজরের নামাজ পড়িবার পর মিরপুর DOHS CSD সংলন্ন পার্ক ‘বৈকালী হ্রদে’ যখন হাঁটা শুরু করিলাম । মনে হইল ইহা তো বৈকালী হ্রদ সকালে হাঁটা কী ঠিক হইতেছে । (নিন্দুকেরা বলিবে আপনি ইহাও ভুলিয়া গেছেন যে, বৈকাল হ্রদ ইজ দ্যা largest lake of sweet water in the world). বজলুর রশিদ স্যার আর নাসিমা Madam এর কথা মনে পড়িয়া গেলো। ভু -গোলকে মোটামুটি গোল করিয়া খাওয়াইয়া দিয়াছিলেন । [ সেই ১৯৯১ সনে বোর্ড পরীক্ষায় ভুগোলে ৮৭ পাওয়াও তাহাদেরি কম্ম। ]

দুপুর পর্যন্ত আলস্যে কাটাইয়া বিকালে গেলাম BASIS Members Welfare মীটিংএ। পড়িমরি করে দৌড়াইয়াও টাইমলি পৌছানো গেলনা। তবু ভালো (আসলে অনেক ভালো) ৪:০৫ মিনিটে পৌছালাম। ক্যাডেট কলেজে শিখাইয়া ছিল সব ইভেন্টে ৫ মিনিট আগে পৌছাতে হবে। ২৩ বছর পর নাহয় একটু দেরিই হইলো।

দোতলা বাসের নিচতলা বসিয়া ৭:১০ মিনিটে আমাদের SAP গুরু মাহি ভাইয়ের বাসায় (Japan garden city) পৌছে গেলাম। অনেকদিন পর দোতলা বাসে চাপিবার আনন্দে মনটা ফুরফুর করিতেছিল । সফটওয়্যার আউট sourcing লইয়া বড় বড় গাল গল্প (এবং ব্যথ্রতার কাহানি ) ফাঁদিয়া যখন বাসার দিকে রওনা দিলাম তখন বাজে রাত ৯ টা। বাসায় ফিরিতে ফিরিতে দশ টা । মনে পড়িল আজ বিশেষ একজনের জন্মদিন ছিল। সেই গল্প থাকুক নাহয় আরেক দিনের জন্য জমা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *